৭ টি ধাপে সুইডেনে উচ্চশিক্ষা
April 28, 2017
ভিসা সাক্ষাৎকার অভিজ্ঞতাঃ অলি হুসাইন রিপন (ডেনমার্ক)
May 1, 2017

স্বল্প খরচে বিমানযোগে দিল্লী ভ্রমন

কয়েকদিন যাবত ভাবতেছিলাম কিছু একটা লিখব  😆 । কিন্তু নানারকম ব্যাস্ততার কারনে লেখা হয়ে উঠতেছিলনা। আজ উইকেন্ড তাই আলসেমিটা পেয়ে যাচ্ছিল তাই চিন্তা করলাম নাহ্ কিছু একটা লিখতে বসি। কিন্তু কি নিয়ে লিখব ভাবতেছি?!!! আচ্ছা আমাদের দেশেতো অনেক দেশের এম্বাসি নেই!!কিন্তু দিন দিন যেই হারে মানুষজন উচ্চশিক্ষার জন্য এবং ব্যবসায়িক প্রয়োজনে বিদেশ যাচ্ছে তাতে করে বাংলাদেশে থাকা এম্বাসিগুলোর পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে থাকা এম্বাসিগুলোতেও প্রচুর পরিমানে বাংলাদেশি ফাইল জমা হচ্ছে। তাই লোকজনকে ভিসা এপ্লিকেশন এবং ইন্টারভিউ এর জন্য পার্শ্ববর্তী দেশ যেমন ইন্ডিয়া,নেপাল প্রভৃতি দেশগুলোতে যায়। এর মধ্যে যেহেতু ইন্ডিয়াতে প্রায় অনেক দেশ এর এম্বাসি রয়েছে তাই ইন্ডিয়াতে বিভিন্ন দেশের এম্বাসিগুলোতে বাংলাদেশি এপ্লিকেন্টের সংখ্যা প্রচুর। এমনিতেই বাংলাদেশ থেকে প্রচুর মানুষ চিকিৎসা,ভ্রমন,শপিং এর জন্য ইন্ডিয়াতে যাতায়াত করেন।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশ যেমন অস্ট্রিয়া,পোল্যান্ড, লিথুয়ানিয়া, লাটভিয়া,এস্তোনিয়া,হাংগেরি,চেক রিপাবলিক, স্লোভাকিয়া ইত্যাদি দেশের এম্বাসি ফেস এবং ভিসা এপ্লিকেশনের জন্য ইন্ডিয়া যাওয়া লাগে এবং সেখানে ১০ দিন-২ মাস পর্যন্ত থাকা লাগে।

বিদেশে পড়াশুনার জন্য মোটামুটি ভালো একটা বাজেট করতে হয়। অনেক সময় অনেক পরিবারের পক্ষে তা ম্যানেজ করা কষ্টকর হয়। তার উপর আবার ইন্ডিয়াতে যাতায়াত এবং থাকা খাওয়ার খরচ বাড়তি বাজেটের সৃষ্টি করে এবং তা অনিচ্ছা থাকা স্বত্বেও অনেক কষ্টে ম্যানেজ করা লাগে। কিন্তু ইন্ডিয়াতো যাওয়া লাগবেই সেটা ইচ্ছাকৃত হোক আর অনিচ্ছাকৃতই হোক…

বিভিন্নজন বিভিন্নভাবে ইন্ডিয়া ভ্রমন করে থাকেন কেউ বিমানপথে আবার কেউবা সড়কপথে। কমবেশি সকলের কাছেই বিমান ভ্রমনটা একটু ব্যয়বহুল লাগে। এমনিতেই বাড়তিবাজেট তার উপর আবার বিমানে যাওয়া!!? অনেকেরই এইবার ভ্রূ কুচকেগেলো মনে হয়! হা হা… মনে মনে সবাই চায় একটু বিমানে চড়ে আরাম করে যেতে কিন্তু সাধ আর সাধ্যের মধ্যে ফারাক থাকায় তা আর হয়ে উঠেনা। ইস: যদি বিমানে যেতে পারতাম… ধুর এতো ভাড়া দিয়ে পোশাবেনা.. যদি কলকাতাতে সব এম্বাসিগুলো থাকতো… এই কথাগুলো অনেকের মনেই আসে।
কিন্তু এম্বাসিগুলোতো দিল্লীতে তাও আবার কলকাতা থেকে ১৩০০-১৪০০ কিলমিটার দূরে। বাজেট কম থাকায় বাধ্য হয়ে মানুষ ঢাকা-বেনাপোল-কলকাতা-দিল্লী এই অসহ্যকর বাস এবং ট্রেন জার্নিটা করে থাকেন। কিন্তু আমার কাছে আছে ভিন্নরুটের তথ্য।
কিন্তু তার আগে এইবার বাস/ট্রেন রুটের একটু হাল্কা বিবরন দিয়ে নেই…

আপনি যদি ঢাকা থেকে দিল্লী যেতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে ঢাকা থেকে বাইরোডে বেনাপল যেতে হবে। এতে আপনার বাস ভাড়া লাগবে ৫০০ টাকা এবং সময় লাগবে নিম্নে সাড়ে ৫ ঘন্টা থেকে উপরে(ট্রাফিক জ্যামের উপর নির্ভর করে)। বর্ডার কিন্তু সকাল ৬ টা থেকে বিকাল ৫/৬ টা পর্যন্ত খোলা থাকে তাই আপনাকে অবশ্যই সময় হিসাব করে বাড়ি থেকে বের হতে হবে। বেনাপোল পৌছানোর পর আপনাকে এক প্যাড়াময় ইমিগ্রেশন অতিক্রম করে আপনাকে ইন্ডিয়াতে প্রবেশ করতে হবে। ইন্ডিয়া পৌছানোর পর আপনি ৩০-৫০ রুপিতে একটি অটোরিকশা নিয়ে সোজা যাবেন বনগাঁও রেলস্টেশন। আপনি চাইলে সীমান্ত থেকে সরাসরি বাসে করে কলকাতা যেতে পারেন। আমি যেহেতু এইখানে সুলভ এবং দ্রুত রুটের কথা আলোচনা করছি তাই বাস সার্ভিসের কথা উল্লেখ করছি না। বনগাঁও রেলস্টেশন থেকে ২০ রুপি দিয়ে শিয়ালদাহের টিকিট কাটবেন এবং শিয়ালদাহ পৌছাতে সময় লাগবে ২ ঘন্টা। সবেমাত্র কলকাতা আসলেন.. এখনো তো দিল্লী অনেক দূর!!! কলকাতায় পৌছাতে পৌছাতে সন্ধ্যা হয়ে গেলে কলকাতায় ১ দিন থাকতে হবে কেননা দিল্লীগামী সবচেয়ে দ্রুতগামী ট্রেন “শিয়ালদাহ রাজধানী এক্সপ্রেস” কলকাতা থেকে দিল্লীর উদ্দেশ্যে ছাড়ে প্রতিদিন বিকাল ৪/৫ টায়। এই ট্রেনের টিকিট কাটুন শিয়ালদহ রেলস্টেশনের টিকিট কাউন্টারে ফরেইনার লাইনে দাঁড়িয়ে। টিকেটের মূল্য ২৫০০-৩০০০ রুপির মধ্যে উঠানামা করে। ট্রেনে করে আপনার দিল্লী পৌছাতে সময় লাগে প্রায় ১৮ ঘন্টা (শিডিউল অনুযায়ী)। কিন্তু ভাগ্য খারাপ হলে আমার মতো আপনাকে ৩৮ ঘন্টা ট্রেনে থাকতে হবে। যাই হোক আমি আর সেই প্রসঙ্গে না যাই।
যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে ঢাকা-দিল্লী বাইরোডে যেতে আপনার সময় লাগবে ২৭-২৮ ঘন্টা। আবার যদি কলকাতায় ১ দিন থাকা লাগে তাহলে সময় এবং টাকার পরিমাণ দুইটাই বাড়বে।

আমি বুঝিনা বাংলাদেশের মানুষ কেনো এত কষ্ট করে ঢাকা থেকে দিল্লী যায় বাইরোডে?!!! কি দরকার এতো কষ্ট করার?!! বিমানে গেলেইতো হয়!!! এখন অনেকেই মনে মনে হয়তবা বলতেছেন টাকাটা আপনি দিয়েন তাহলে আমি বিমান কেনো প্রাইভেট জেট ভাড়া করে যাব দরকার হলে ইউএস এর প্রেসিডেন্টের প্লেন দিয়ে যাব হা হা…
বিলিভ মি বাংলাদেশ থেকে আপনি খুব শান্তি করে দিল্লী যেতে পারবেন, ইভেন এর মধ্যে প্লেন জার্নি ইনক্লুডেড। অনেক তথ্য ঘাটাঘাটি করে জানতে পারলাম খুব কম খরচে এবং কম সময়ে ঢাকা-দিল্লী যাতায়াত করা যায়।

কিভাবে??

এখন অনেকেই হয়তবা ভাবতেছেন আমি ঢাকা-কলকাতা-দিল্লী প্লেন রুটের কথা ইংগিত করছি যার ভাড়া ১২০০০-১৭০০০ টাকা এবং জার্নি ডিউরেশন ১০-২০ ঘন্টা(ডিপেন্ড অন কলকাতা এয়ারপোর্টে যাত্রা বিরতির উপর)
কিন্তু না আমি বলছি সম্পূর্ন ভিন্ন রুটের কথা। আমরা অনেকেই জানি যে ইন্ডিয়ার সাথে বাংলাদেশের একটি স্থলবন্দর রয়েছে যেটির নাম আখাউড়া স্থলবন্দর(বাংলাদেশ অংশে)/ আগরতলা স্থলবন্দর(ইন্ডিয়া অংশে)। এই স্থলবন্দরটি ব্রাক্ষনবাড়িয়া জেলার অন্তর্গত।
কেউ কেউ ভাবছেন আখাউড়া দিয়ে দিল্লী যাব এতো ঘুরে তাও আবার বাইরোডে!! পাগল না হয়ে গেলে কেউ এতো ঘুরবে না….
না আপনারা কেউ পাগল বা আমি পাগল হই নাই.. হা হা
মেইন কথা হলো সীমান্তের ওই পাড়ে যে আগরতলার কথা বলছি তা হলো ইন্ডিয়ার ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী। এই আগরতলার এয়ারপোর্টটির নাম ও আগরতলা এয়ারপোর্ট,যেটি অবস্থিত বাংলাদেশের সীমান্তের একদম পাশে। ইমিগ্রেশন পার হয়ে আগরতলা এয়ারপোর্টে যেতে সময় লাগবে ১০-১৫ মিনিট এবং বাস ভাড়া নিবে ৫ রুপি ও হ্যাঁ ঢাকা থেকে আখাউড়া যেতে সময় লাগবে ৩ ঘন্টা ট্রেনে এবং ভাড়া নিবে ২০০ টাকা এরপর রিক্সা দিয়ে বর্ডারে যেতে সময় লাগবে ১০-১২ মিনিট।
আপনারা জানেন না আগরতলা এয়ারপোর্ট থেকে দিল্লী পর্যন্ত বিমান ভাড়া মাত্র ৪৫০০-৫০০০ রুপি বাংলা টাকায় ৫৫০০-৬০০০ টাকা(ওয়ানওয়ে)এবং সময় লাগবে সর্বনিম্ন ৪ ঘন্টা তাও ১ জায়গায় যাত্রা বিরতি সহ।
কি অবাক লাগছে? না অবাক হওয়ার কিছুই নেই এইটাই সত্যি।

**এই রুট ব্যবহারের জন্য আপনাকে আবশ্যই ইন্ডিয়ান ভিশা আপ্লিকেশনের সময় Entry Port অপশনে By Road Agartala সিলেক্ট করতে হবে**

তাহলে ঢাকা-আগারতলা-দিল্লী যেতে সময় লাগবে মোট সাড়ে ৭ ঘন্টা। এবং আপনারা প্লেনে করে দিল্লী যেতে পারতেছেন,কোনরূপ কষ্ট ছাড়া। এবং খরচ হবে সর্বমোট প্রায় ৬৫০০ টাকার মতো।
ঢাকা থেকে দিল্লীর ডিরেক্ট ফ্লাইটের(২ ঘন্টা ৪০ মিনিট ডিউরেশন) মিনিমাম ভাড়া ১৮,০০০-২০,০০০ টাকা(ওয়ানওয়ে)। যা অনেকের পক্ষেই খরচ করা সম্ভব নয়। সব টাকা বিমান ভাড়া দিলে তো হবে না আরও অনেক খরচ আছে।
এখন সিদ্ধান্ত আপনাদের উপর,শুধুমাত্র ১৫০০-২০০০ টাকা বাচানোর জন্য কি বাইরোডে সময় এবং শ্রম দুই টাই বিসর্জন দিবেন নাকি রিলাক্স ভাবে প্লেনে চড়ে সুলভ মূল্যে ভ্রমন করবেন??
সবার জন্য শুভকামনা রইল। সামনে ইন্ডিয়াতে অবস্থানকালিন সময়ের কিছু এক্সপ্রিয়েন্স শেয়ার করব আপনাদের সাথে এবং কিভাবে খুব কম খরচে দিল্লীতে থাকা যায় তাও বলে দিব ইনশাআল্লাহ।
লেখক: আশফাক আহমেদ অমি
ক্লাইপেডা ইউনিভার্সিটি, ক্লাইপেডা
লিথুয়ানিয়া
স্বেচ্ছাসেবক, বিএসসিই

 

ফেসবুক মন্তব্য
Ashfaq Omi
Follow Me

Ashfaq Omi

Volunteer at BSCE
I am what I am.I do what I believe to be done.I know very little but I always want to learn more.
Ashfaq Omi
Follow Me
 
শেয়ার করুনঃ
Ashfaq Omi
Ashfaq Omi
I am what I am.I do what I believe to be done.I know very little but I always want to learn more.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *