জার্মানিতে স্নাতক পর্যায়ে পড়াশুনা

হাঙ্গেরিতে স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চশিক্ষা (Stipendium Hungaricum)!
November 19, 2018
ইরাসমুস মুন্ডুস মাস্টার্সঃ ২ বছরে ৩১ লাখ টাকা
December 14, 2018

জার্মানিতে স্নাতক পর্যায়ে পড়াশুনা

জার্মানিতে স্নাতক পর্যায়ে পড়াশুনা

টিউশন ফি বিহীন বিশ্বমানের লেখাপড়া,কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকার কর্তৃক বিদেশী ছাত্রছাত্রীদের প্রদত্ত আকর্ষণীয় নানা সুবিধাসহ বিভিন্ন কারণে জার্মানি এখন বিদেশী ছাত্রছাত্রীদের পছন্দের শীর্ষে। বাংলাদেশ থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে এখন অনেকেই আসছেন এংগেলা মার্কেলের দেশে। আমরা আজ আলোচনা করবো সরাসরি ব্যাচেলর পর্যায়ে আবেদনের যোগ্যতা নিয়ে।

বাংলাদেশ থেকে জার্মানীতে সরাসরি ব্যাচেলরে আবেদন করতে হলে ইন্টার (১২ ক্লাস) এর পর একবছর ব্যাচেলর কমপ্লিট করতে হয়। এবং সেটা হতে হবে ইন্টারের সাথে ও জার্মানীতে আপনি যে সাবজেক্ট নিয়ে পড়তে চান তার রিলেটেড। আপনি সায়েন্স গ্রুপে ইন্টার কমপ্লিট করে একবছর ইংলিশ নিয়ে পড়ে জার্মানীতে ইঞ্জিনিয়ারিং এ এপ্লাই করলে নিশ্চিতভাবে প্রশ্নের সম্মুখীন হবেন। ইন্টারের জিপিএ ৩.৫+ থাকা ভাল। আপনি যদি সেমিস্টার ভিত্তিক ইউনিতে একবছর ব্যাচেলর পড়তে চান তাহলে আপনাকে ২৫% ক্রেডিট কমপ্লিট করতে হবে যত সেমিস্টারই লাগুক। মানে আপনার কোর্সের মোট ক্রেডিট ১২০ হলে আপনাকে ৩০ ক্রেডিট সম্পন্ন করতে হবে। আর যদি ইয়ার ভিত্তিক ইউনিতে পড়েন যেমন ন্যাশনালে, তাহলে ক্রেডিটের হিসাব এখানে নেই। ১ম বর্ষে যতগুলো সাবজেক্ট থাকবে এগুলো কমপ্লিট করলেই চলবে।.১২০ ক্রেডিটের কোর্সে ১ম বর্ষে ২০ ক্রেডিট হলেও সমস্যা নেই।
যারা ডিপ্লোমা করছেন তাদেরকেও একবছর ব্যাচেলর কমপ্লিট করতে হবে। কারণ চারবছরের ডিপ্লোমা দুইবছরের ইন্টার সমমান। জার্মানিতে এই সিস্টেম অপরিচিত হওায় ইউনিগুলো অনেক সময় প্রমাণ চায়। সেজন্য সংশ্লিষ্ট বোর্ড থেকে এটার জন্য সার্টিফিকেট নিতে হয়।

একবছর অনার্সের রেজাল্ট কতটা ইম্পর্ট্যান্ট? বাংলাদেশের ১২ বছরের স্টাডি জার্মান ইউনিভার্সিটিতে প্রবেশের মিনিমাম যোগ্যতা পূরণ করে না। সেজন্য একবছর দেশেই অনার্স কমপ্লিট করে সেই যোগ্যতা অর্জন করতে হয়। ইন্টারের ব্যাপারে ৫০% পয়েন্ট মিনিমাম থাকার কথা ডাডে বলা হয়। কিন্তু একবছর অনার্সের ক্ষেত্রে এরকম কোনো বাধানিষেধ নেই। সেক্ষেত্রে মিনিমাম রেজাল্ট দেখালেও আপনি আবেদন করতে পারবেন। তবে এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ইন্টারের রেজাল্ট ও একবছর অনার্সের রেজাল্ট মোট করেই জার্মান ইউনিভার্সিটি ইন্ট্রেন্স কোয়ালিফিকেশন হিসেব করা হয়। সেক্ষেত্রে আপনার ইন্টার ও একবছর ব্যাচেলর উভয়টার রেজাল্টই যদি খারাপ হয় তাহলে আপনি এডমিশন লেটার কিংবা ভিসা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। (*জার্মানীতে উচ্চশিক্ষা নিতে হলে বাংলাদেশে ভর্তির সময় ইউনিগুলোর ‘জার্মান স্টেটাস’ যাচাই করুন। সেটা আনাবীন ডাটাবেজে পাবেন।)

ব্যাচেলরের জন্য ইংলিশ মিডিয়াম কোর্সে সাধারণত আইলেটস পয়েন্ট ৬ চাইয় বেশিরভাগ ইউনি। কেউ কেউ ৬.৫, ৫.৫ ও মিনিমাম রিকুয়ারমেন্ট হিসেবে চায়। সুবিধা হলো ইন্টারের পর একবছর অনার্স করার সময়ই আপনি আইলেটস এর প্রেপারেশন নিয়ে এপ্লাই করতে পারছেন।

কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে করতে পারেন। আগামীতে এপ্লিকেশনের বিভিন্ন ধাপ নিয়ে কথা হবে ইনশাআল্লাহ।

গুরুত্বপূর্ণ লিংকসমূহঃ

জার্মান শিক্ষা বিষয়ক মূল ওয়েবসাইটঃ  https://www.daad.de/en/

এখানে পাবেন কান্ট্রি বেইজড ইনফরমেশন – https://anabin.kmk.org/anabin.html

কোর্স ও ইউনি খুজতে- https://www.study-in.de/en/

 

লেখকঃ হাম্মাদ সেজুল

Communication & Information Engineering (B.Sc)
Rhine-Waal University of Applied Sciences
Germany

ফেসবুক মন্তব্য
Mahedi Hasan
Follow Me

Mahedi Hasan

স্বপ্নদর্শী ও ভ্রমণপিপাসু একজন মানুষ। নতুন কিছু শিখতে ও জানতে ভাল লাগে। নিজে যা জানি সেটা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি।
Mahedi Hasan
Follow Me
 
শেয়ার করুনঃ
Mahedi Hasan
Mahedi Hasan
স্বপ্নদর্শী ও ভ্রমণপিপাসু একজন মানুষ। নতুন কিছু শিখতে ও জানতে ভাল লাগে। নিজে যা জানি সেটা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *