ইউরোপীয় ইউনিভার্সিটিতে আবেদনের সময়

বিদেশে পড়াশোনা করতে চাইলে অনেকগুলো ধাপ অতিক্রম করতে হয়। সবগুলো ধাপের মধ্যে সবচেয়ে মৌলিক ও প্রথম ধাপ হল ইউনিভার্সিটিতে অ্যাপ্লাই করা। কিন্তু অ্যাপ্লাই তো আর নিজের মনগড়া মত যখন ইচ্ছা তখন করা যায় না। প্রতিটি ইউনিভার্সিটি/প্রোগ্রাম/কোর্সের ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা দেওয়া থাকে। এখানে কোন মাসে কোন দেশে অ্যাপ্লাই করা যায় সে সম্পর্কে একটা ধারণা দেওয়া হল। চলুন তাহলে এক নজরে দেখে নেই কোন কোন মাসে কোন কোন দেশে অ্যাপ্লাই করার সুযোগ থাকে।

বামপাশে মাসের নাম ও ডানপাশে দেশের নাম উল্লেখ করা হল।

জানুয়ারীঃ ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, লুক্সেম্বুরগ, সুইডেন
ফেব্রুয়ারীঃ অস্ট্রিয়া, ফিনল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, গ্রিস, হাঙ্গেরি, লুক্সেম্বুরগ, নেদারল্যান্ডস, স্লোভেনিয়া
মার্চঃ ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড, নরওয়ে, স্লোভেনিয়া, সুইডেন
এপ্রিলঃ অস্ট্রিয়া, ফিনল্যান্ড, ইতালি, নরওয়ে, সুইডেন
মেঃ আয়ারল্যান্ড, ইতালি
জুনঃ আইসল্যান্ড, স্পেন
জুলাইঃ জার্মানি, গ্রিস, লুক্সেম্বুরগ
আগস্টঃ গ্রিস, লুক্সেম্বুরগ, স্লোভেনিয়া, সুইডেন
সেপ্টেম্বরঃ অস্ট্রিয়া, ফিনল্যান্ড, গ্রিস, লুক্সেম্বুরগ, নেদারল্যান্ডস, স্লোভেনিয়া, স্পেন
অক্টোবরঃ সুইডেন
নভেম্বরঃ অস্ট্রিয়া, ফিনল্যান্ড, হাঙ্গেরি
ডিসেম্বরঃ স্পেন
এখানে উল্লিখিত সময়গুলো বেশিরভাগ ইউনিভার্সিটির আবেদনের সময়সীমার উপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়েছে। তবে এর ব্যতিক্রম থাকতে পারে। ইউনিভার্সিটির অ্যাপ্লিকেশান ডেডলাইন অবশ্যই ইউনিভার্সিটির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে দেখে নিবেন।
ধন্যবাদ।
ফেসবুক মন্তব্য
Print Friendly, PDF & Email
 
শেয়ার করুনঃ

Mahedi Hasan

স্বপ্নবাজ ও ভ্রমণপিপাসু একজন মানুষ। নতুন কিছু জানতে ও শিখতে ভালো লাগে। নিজে যা জানি তা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। আমার সম্পর্কেঃ http://www.hmahedi.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *